সরকারি দপ্তরের গাড়ি ৩০০০ সিসির বেশি আর না

84
মন্ত্রণালয়

ঢাকা অফিস

উন্নয়ন প্রকল্পের টাকায় সরকারের বিভিন্ন দপ্তরের গাড়িবিলাস থামাতে অতি উচ্চ ইঞ্জিন ক্ষমতার গাড়ি কেনা বন্ধের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। গাড়ি কেনাকাটায় লাগাম টানতে তিন হাজার সিসির বেশি ক্ষমতার গাড়ি কেনা বন্ধ করতে যাচ্ছে সরকার। সম্প্রতি সরকারের উচ্চপর্যায়ের এক বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত হয়েছে।

 

যেসব যুক্তিতে এসব গাড়ি কেনা বন্ধের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে, তার মধ্যে অন্যতম এসব গাড়ি ব্যবহারে অত্যধিক জ্বালানি লাগে। রক্ষণাবেক্ষণের খরচও বেশি। তা ছাড়া বাংলাদেশের বিদ্যমান রাস্তাও এসব গাড়ি চালানোর উপযোগী নয়। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলামের সভাপতিত্বে গত ১৪ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত অর্পিত ক্রয় ও সরকারি পদ্ধতি, আর্থিক বিধিবিধান ও আর্থিক ক্ষমতা অর্পণসংক্রান্ত সভায় এসব গাড়ি কেনা বন্ধের সিদ্ধান্ত হয়। ওই সভায় সব মন্ত্রণালয়ের সচিবরা উপস্থিত ছিলেন।

 

সচিবপর্যায়ের বৈঠকের সিদ্ধান্তের বিষয়ে কথা হয় বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) একাধিক কর্মকর্তার সঙ্গে। তাঁরা বলেছেন, বাংলাদেশে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলো সাধারণত তিন হাজার সিসির বেশি ক্ষমতার গাড়ি কেনে। সরকারের অন্য দপ্তরে এ ধরনের গাড়ি কেনার হার খুব বেশি নয়। বর্তমানে সরকারি দপ্তরের গাড়ি সরবরাহ করে রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ ইস্পাত ও প্রকৌশল সংস্থার (বিএসইসি) আওতাধীন প্রগতি ইন্ডাস্ট্রি।