ইসলামপুরে বজ্রপাতে নিহত ৬

161
নিহত
নিহত

রোকনুজ্জামান সবুজ, জামালপুর 

জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলায় বজ্রপাতে ৬ ব্যক্তির নিহত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২০মে) ৩ ঘটিকায় উপজেলার পৃথক পৃথক স্থানে বজ্রপাতে নিহতের ঘটনা ঘটেছে। আহত হয়েছেন অন্তত ৫জন।

আরও পড়ুনঃ

তিন দিনেই তৈরী হচ্ছে মটরচালিত রিক্সা চালক

এছাড়াও ৫ টি গরু মারা যাওয়ার খবর পাওয়া গেছে। ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে ঘরবাড়িসহ বিভিন্ন ফসলাদির।
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, বজ্রপাতে ৬ জন নিহত হয়েছে। নিহতরা হলেন, উপজেলার গাইবান্ধা ইউনিয়নের চন্দনপুর গ্রামের মধ্যপাড়া এলাকার মৃত আখের মাহমুদের ছেলে মহিজল মিয়া (৫০),পাথর্শী ইউনিয়নের পশ্চিম গামারিয়া গ্রামের মৃত জব্বার খা’র ছেলে এনামুল হক (৩৫, মৃত কাইলে শেখের ছেলে শাজাহান(৩৮),মৃত হাসান শেখের ছেলে কালা শেখ (৪৫), পলবান্ধা ইউনিয়নের বাটিকামারী গ্রামের মৃত কান্ডু শেখের ছেলে জবেদ আলী(৬৮), সাপধরী ইউনিয়নের প্রজাপতি গ্রামের কুদ্দুস মোল্লার ছেলে বিল্লাল হোসেন (৩৬)। একই সময় বজ্রপাতে আহত হয়েছেন অন্তত ৫ জন।
গুরুতর আহতরা হলেন, সাপধরী ইউনিয়নের প্রজাপতি গ্রামের ইনসাফ আলী, পাথর্শী ইউনিয়নের গামারিয়া গ্রামের টিসু মিয়া, হামিদ, রাজা মিয়া, গাইবান্ধা ইউনিয়নের চন্দনপুর গ্রামের নিহত মহিজল মিয়ার স্ত্রী দেলোয়ারা বেগম। এছাড়া পলবান্ধা ইউনিয়নের বাহাদুরপুর গ্রামের আক্তার আলীর ৩টি গরু এবং সাপধরী ইউনিয়নের কাশারীডোবা গ্রামের বদিউজ্জামান মন্ডলের ২টি বজ্রপাতে গরু মারা গেছে।
পাথর্শী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইফতেখার আলম বাবুল জানান- হলহলি ব্রীজের পার্শ্বে ধান কাটার সময় বজ্রপাতে ঘটনাস্থলে ২ জন ও হাসপাতালে ১ জন নিহত হয়েছে। আহতের উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসা করা হয়েছে।
সাপধরী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীন জানান-প্রজাপতি গ্রামে বিল্লাল হোসেন নামে একজন নিহত হয়েছে।
গাইবান্ধা ইউনিয়ন আ’লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন জানান জানান- চন্দনপুর গ্রামের মহিজল মিয়া বাড়ির পাশে স্বামী ও স্ত্রী এক সাথে ধানের খড় শোকানোর অবস্থায় বজ্রপাতে ঘটনাস্থলে মৃত্যু হয়েছে।