আপনার হাতে জেগে উঠুক বাংলা

222
আপনার হাতে জেগে উঠুক বাংলা
আপনার হাতে জেগে উঠুক বাংলা

শাহাদাৎ হোসেন ভূঁইয়া
সাহিত্যের প্রতিটি ধারায় যাঁর অগাধ বিচরণ তাঁর নাম কবি রমজান বিন মোজাম্মেল। সাহিত্য জগতে যাঁর অবদান দুই বাংলায় প্রশংসিত। ওপার বাংলায় যাঁকে শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন কাব্যের দাদা দিদিগণ। কবি রমজান বিন মোজাম্মেল-এর ৪৬তম শুভ জন্মদিনে প্রাচ্যের শহর নারায়ণগঞ্জের কাদা মাটির শুভেচ্ছা। সেই সাথে আগামীদিনে কাব্যাঙ্গনে ঝাঁক আর বাঁক সৃষ্টির অনুপ্রেরণা রইলো। আমরা কবিতার বীজ বুনি মানুষের অন্তরে। সুরভিত আর মোহিত করি সৌন্দর্যকে। বিদ্রোহ সৃষ্টির করি শোষিতের বন্দরে।
আপনার জীবন হোক সুন্দর, পবিত্র বহমান শীতলক্ষ্যার মতো। আপনার জীবন হোক ব্যস্ততম নিতাইগঞ্জের মতো। জন্মের লগনে আপনি কেঁদেছিলেন সকলে হেসেছিলো। জীবনের পরতে পরতে সৃষ্টি করেছেন অদম্য বাসনা। জন্মদিন ফিরে আসুক বার বার। শোভিত হোক আকাশ বাতাস। মহুয়ার বনে লাগুক আগুন। উন্মাদনায় ছেঁয়ে যাক মহাবিশ্ব। সমুদ্রের মতো গভীর হোক আপনার অন্তর।
আঁকা বাঁকা শহুরে পথে
হেটে চলে কাব্যের রথে
এই বাংলা ছাড়িয়ে ওই বাংলায়
সময় কাটায় মেঘের ভেলায়
শুভ জন্মদিন
কবি রমজান বিন মোজাম্মেল।
আকাশে বাতাসে সবুজে সমারোহে
গলি পথে কিংবা রাজপথে
আষ্টে পিষ্ঠে থাকা মায়ের কোলে
প্রিয় দর্শীনির হাতে কোমল পরশে
শুভ জন্মদিন
কবি রমজান বিন মোজাম্মেল।
পূজোর শহর নারায়ণগঞ্জে
সোনার শহর ফতেপুরে
ঈশা খাঁর বীরের বেশে
এসেছিলেন এই ধরনীতে
শুভ জন্মদিন
কবি রমজান বিন মোজাম্মেল।

লেখক: সাহিত্যিক, সাংবাদিক, রাজনীতিবিদ ও সংগঠক।